,

সময়োপযোগী কবিতাঃ ধর্ষণ যখন দর্শন

ধর্ষণ যখন দর্শন 

কামরুজ্জামান বাবু 

আট দিনে ধর্ষিত একচল্লিশ শিশু
এটা কোন ব্যাপারই না ! আসলেই না ।
ধর্ষণ শেষে থেতলে দেয়া মাথা
অযথাই তোল শুধু প্রতিবাদের বায়না।
এগুলো না আমার বঙ্গদেশে মানায় না ।

এটা একটা শৈল্পিক দর্শন- ধর্ষণ
শিল্পীরা তো থেমে থাকার পাত্র নয় !
তোমার এত্তো আহাজারি, চক্ষুজল বর্ষন
মোটেই তা শৈল্পিকতায় কাম্য নয়,
এগুলো না আমার বঙ্গদেশে সাধারন বিষয়।

তনু, খাদিজা, নুসরাত- ঘটনাটা শোন-
এটা শুধু তাদের নামে দুর্নাম রাটানো,
ওরা বলো আমার তোমার কে-ই বা হয় ?
শুধু শুধু মানববন্ধন, পেছনে হায়নার ভয়।
এগুলো না আমার বঙ্গদেশে কোন ব্যাপার নয়।

হতো যদি এসব কোন রাঘব বোয়ালের বাচ্চা,
কিংবা যদি হতো কোন ক্ষমতাবানের কেউ-
দেখতে তুমি ফাসির মঞ্চে ধর্ষকদের ঢেউ,
ওরা তো খুব সাধারণ, সাধারণ বাচ্চা কাচ্চা
এগুলো না আমার বঙ্গদেশে অহরহই হয়।

মানববন্ধন মনুষের, সাধারণের চক্ষুজল মিথ্যের জাল
কি হয়েছে, কি করেছে , তারাই বাপের ব্যাটা-
তাদের কপালে কার সাহস মারতে পারে ঝাঁটা !
একটা যদি ফাঁসি ঝোলানো ছবি হতো ভাইরাল !
এগুলো না আমার বঙ্গদেশে কখনোই হবার নয়।

একটা কাজই আমারা করতে পারি- কেটে দিই ওটা,
শ্লোগান, বাদ প্রতিবাদ বাদ দিয়েই যাই, কি বলো ?
আসো, আমরা হয়তো পুরুষ হই নয়তো তৃতীয় লিঙ্গ, চলো-
আগুন দিয়ে পোড়াতে পারি, আর নয় চোখ ছলছল
আমার বঙ্গদেশে দিতে আমরাই পারি লাল সবুজের ফোঁটা।











     এই বিভাগের আরও খবর

আমরা আছি ফেসবুকে

পুরাতন খবর

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১