,

প্রধানমন্ত্রী সমীপে খোলা চিঠি

বরাবর,
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী (মমতাময়ী শেখ হাসিনা),
গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার।
বিষয়: বর্তমান সময়ের প্রেক্ষাপটের কথা চিন্তা করে অবহেলিত  বিক্রয় শিল্পীদের প্রতি শু-দৃষ্টির জন্য আবেদন।
যথাবিহীত সম্মানপূর্বক বিনীত নিবেদন এই যে, মাদার অফ হিউম্যানিটি খ্যাত মমতাময়ী “মা”আসসালামু আলাইকুম।
আজ এমন এক সময় আপনার কাছে লিখছি যখন দেশ আপনার নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা উন্নয়নশীল দেশে পরিণত হয়েছে। জানিনা আমার এই লেখা আপনার কাছে পৌঁছাবে কিনা। তারপরও আপনাকেই লিখছি কেননা আপনিই বুঝবেন এদেশের লাখ লাখ বিক্রয় শিল্পীদের কথা।
মমতাময়ী মা,
আপনি এদেশে লাখ লাখ রোহিঙ্গাকে আশ্রয় দিয়ে পৃথিবীর বুকে মানবতার যে উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন তার কোন তুলনা হয় না।
কিন্তু আপনি জানেন কি এদেশের বিক্রয় শিল্পীরা আজ রোহিঙ্গাদের মতই।
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী,
দুঃখজনক হলেও সত্য যে, দেশ যখন উন্নয়নের মহাসড়কে তখন পিছিয়ে রয়েছে দেশের লাখ লাখ বিক্রয় শিল্পী । যাদের সংসার চালাতে অনেক কষ্ট হয়,  তা কেউ বুঝে না।সেলসে্ সর্বোচ্চ চাকুরী করা যাবে ২০/২৫ বছর,কোন ভাবে লবন – ভাত খেয়ে। কিন্তু চাকুরী  পরে ভবিষ্যতে কি হবে আজও কেউ জানে না।
দেশে মোট চাকুরী জীবিদের  দুই ভাগে ভাগ করলে, সরকারিদের অনেক সুযোগ সুবিধা,  আর বে-সরকারীদের কম, তার মধ্যে কোম্পানির নিচের  লেভেল তো একদম শেষ।মমতাময়ী মা, আপনিই বলেন এক দেশে এই অনুপাত কি আদৌ একটা গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে মানায়?
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, আপনার হাত ধরে দেশ উন্নয়নশীল রাষ্ট্রে পরিণত হয়েছে। যদি সকল ক্ষেত্রে সমহারে সুযোগ দেয়া হয় তাহলে আপনার নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর এই সোনার বাংলাকে উন্নত রাষ্ট্রে উন্নীত করতে সক্ষম হবে।
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, আপনার উপর ১৬ কোটি মানুষের আস্তা রয়েছে, যতদিন আপনার হাতে দেশ, পথ হারাবে না বাংলাদেশ।।।।।
অতএব, সমীপে আকুল আবেদন এই লাখ লাখ বিক্রয় শিল্পীদের কথা চিন্তা করে, তাদের মা- বাবা, সন্তান -বৌ, তাদের পরিবার ও ভবিষ্যৎতের কথা মাথায় রেখে একটা যৌক্তিক ( পেনশনের) ব্যবস্থা  করতে আপনার যেন মর্জি হয়।
নিবেদক
লাখ লাখ বিক্রয় শিল্পীদের পক্ষে
হুমায়ুন কবির।
image_pdfimage_print











     এই বিভাগের আরও খবর

আমরা আছি ফেসবুকে