,


প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘গরু চেয়ার’ করবে ভারত

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ গত মে মাসে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে দলীয় ইশতেহারে গরুর উন্নতি বিষয়ক বিভিন্ন প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল বিজেপি। বলা হয়েছিল, ভারতের সমাজ হবে ‘গরুকল্যাণমূলক’ একটি সমাজ। নির্বাচনে জিতে আসার পর এখন প্রতিশ্রুতি পূরণের পালা। ইতোমধ্যে গরু বেচাকেনা এবং জবাই বন্ধের পর বিজেপি সরকার নতুন নতুন উদ্যোগ নিচ্ছে।

গরুকল্যাণের জন্য গত ফেব্রুয়ারি মাসে ভারত সরকার ‘জাতীয় গরু কমিশন’ (রাষ্ট্রীয় কামধেনু আয়ুগ) গঠন করে। সেই কমিশনের প্রধান হলেন ডা. ভল্লব কাঠিরিয়া। অনলাইন সংবাদমাধ্যম ‘স্ক্রল ডট ইন’ ডা. ভল্লবের একটি সাক্ষাৎকার প্রকাশ করেছে রবিবার।

সাক্ষাৎকার ডা. ভল্লব কাঠিরিয়া জানিয়েছেন, গরু নিয়ে তার কমিশনের অনেক পরিকল্পনা রয়েছে। এসব পরিকল্পনার মধ্যে আছে, বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘গরু চেয়ার’ প্রতিষ্ঠা করা; যেখানে গরু বিষয়ক পড়াশোনা বা গবেষণা হবে। এছাড়া ‘গরুনগর’ও প্রতিষ্ঠা করবে কমিশন।

বেওয়ারিশ গরুদেরকে আশ্রয় দেয়ার জন্য বানানো এসব ‘নগর’ পর্যটকদের জন্য উপযোগী করে তোলা হবে বলেও জানান ডা. ভল্লব। তার ভাষায়, ‘আমরা ‘গরু পর্যটন’ এর ব্যাপারে চিন্তা করছি। যদি গরুর আশ্রয়খানাগুলোকে পর্যটনের মধ্যে ঢুকানো যায় তাহলে মানুষ ঘুরতে যাবে, শিশুরা এসব থেকে শিক্ষা গ্রহণ করবে। আমরা বৈজ্ঞানিক উপায়ে গরু সম্পর্কে মানুষকে অবগত করতে চাই।’

তিনি আরও জানান, প্রতিটি গরু আশ্রয়খানায় বায়োগ্যাস প্লান্ট থাকবে, জৈব সারেরও ছোট একটি কারখানা থাকবে, এছাড়া থাকবে গোমূত্র থেকে তৈরি করা নানা ওষুধ। একটি কাউন্টার থাকবে যেখানে সাবান-শ্যাম্পু-ফেনােইল ইত্যাদি বিক্রি করা হবে।

গরু কমিশন প্রধান বলেন, আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী একজন সড়সড়ো গোপুজক। এবং বৈজ্ঞানিক ও অর্থনৈতিক চিন্তার সমন্বয়ে কিভাবে গরুর সেবা করা যায় সে বিষয়ে তিনি অনেক পড়াশোনা করেছেন।

image_pdfimage_print




     এই বিভাগের আরও খবর

আমরা আছি ফেসবুকে